Archive for অক্টোবর, 2011

অক্টোবর 31, 2011

‘ওগুলো (প্রমাণ) আমি ওজু করতে গিয়ে মধ্য পুকুরে সব হারিয়ে ফেলেছি।’


উষ্ণআলো  । খবর

সঠিক তথ্যের অভাবে এসব অভিযোগ করে ফেলেছি .  নির্বাচনের আগে ও পরে যেসব অভিযোগ করেছি সেগুলো আপাতত প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পরাজিত মেয়র পদপ্রার্থী শামীম ওসমান বলেছেন, এ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়েছে।

আজ সোমবার বেলা সোয়া তিনটার দিকে নারায়ণগঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
শামীম ওসমান বলেন, ‘আইভীকে অভিনন্দন জানাই। ইতিমধ্যে তাঁকে ফুলের তোড়া পাঠিয়েছি। আমার কোনো সহায়তা চাইলে দিতে প্রস্তুত আছি।’
নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে বলে গতকাল শামীম ওসমান অভিযোগ করেছিলেন।

কারচুপির প্রমাণ সম্পর্কে   তিনি উষ্ণআলোকে  বলেন, ‘ওগুলো (প্রমাণ) আমি ওজু করতে গিয়ে মধ্য পুকুরে সব হারিয়ে ফেলেছি।’

তিনি বলেন, ‘এই নির্বাচনের মাধ্যমে প্রমাণিত হয় রাজনৈতিক সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করা সম্ভব।’
শামীম ওসমান বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে আমারও কিছু স্বপ্ন ও পরিকল্পনা ছিল। আমি তাঁকে সব ধরনের সহযোগিতা করব।’ তিনি বলেন, ‘আমি আশা করেছিলাম জয়ের পরে  আইভী আমার কাছে আসবে।’

read more »

Advertisements
অক্টোবর 31, 2011

জয়ী আইভী নাসিক নির্বাচনে :শামীমের কান্না : ভোট পেয়েছেন ১,৮০,৯৮টি, শামীম ওসমান পেয়েছেন ৭৮,৭০৫ ভোট


জয়ী আইভী নাসিক নির্বাচনে : ভোট পেয়েছেন ১,৮০,৯৮টি, শামীম ওসমান পেয়েছেন ৭৮,৭০৫ ভোট

অবশেষে ১৯৭৪ সালের নির্বাচনেরই পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে। সেলিনা হায়াত্ আইভী অবশ্য তেমনটাই প্রত্যাশা করেছিলেন। সেই আশায় তিনি দলীয় সমর্থন না পেয়েও দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে সাধারণ মানুষের ওপর ভরসা রেখে নির্বাচনী মাঠে নেমেছিলেন। তাঁর সেই আশা পূরণ হচ্ছে। দোর্দণ্ড প্রতিপক্ষ শামীম ওসমানকে বিপুল ব্যবধানে পরাজিত করে তিনি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র নির্বাচিত হতে চলেছেন।
১৯৭৪ সালে প্রথমবারের মতো নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে আইভীর বাবা জনপ্রিয় শ্রমিক নেতা আলী আহাম্মেদ চুনকা ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সমর্থন চেয়েছিলেন। কিন্তু দলটি সমর্থন দিয়েছিল আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থীকে। দলের সমর্থনই যে সবকিছু নয়, জনগণ ব্যালটের মাধ্যমে তা প্রমাণ করে দিয়েছিলেন। ওই নির্বাচনে আলী আহাম্মেদ চুনকার জয় ইতিহাস তৈরি করেছিল।
৩৭ বছর পর অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচনে এবার সেই ইতিহাসেরই পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে। আর সেই ইতিহাস গড়তে যাচ্ছেন আহম্মেদ চুনকারই মেয়ে সেলিনা হায়াত্ আইভী। আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িত আইভীও দলের সমর্থন চেয়েছিলেন। কিন্তু দল সমর্থন দেয় আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতা ও বিতর্কিত সাবেক সাংসদ শামীম ওসমানকে। দলের সিদ্ধান্তে মোটেই বিচলিত কিংবা হতাশ হননি আইভী। নির্বাচনী প্রচারকালে জনগণের উদ্দেশে দেওয়া বক্তৃতা এবং গণমাধ্যমে দেওয়া বিবৃতিগুলো থেকে তাঁর সেই অবিচল মনোভাব স্পষ্ট হয়ে ওঠে।

read more »

ট্যাগ সমুহঃ
অক্টোবর 25, 2011

আমরা এর পূর্ণ প্রতিশোধ এবং প্রতিরোধ চালিয়ে যাব. আমি লিবিয়াতে আছি, জীবিত এবং মুক্ত — সাইফ আল ইসলাম


আমরা এর পূর্ণ প্রতিশোধ এবং প্রতিরোধ চালিয়ে যাব. আমি লিবিয়াতে আছি, জীবিত এবং মুক্ত — গাদ্দাফি পুত্র সাইফ আল ইসলাম

read more »

ট্যাগ সমুহঃ
অক্টোবর 24, 2011

গাদ্দাফির শেষ ইচ্ছা


আমি মুয়াম্মার বিন মোহাম্মদ বিন আবদুস সালাম বিন হুমায়ুদ বিন আবু মানিয়ার বিন হুমায়ুদ বিন নায়েল আল ফুহসি গাদ্দাফি,

শপথ করছি যে, আল্লাহ ছাড়া কোনো প্রভু নেই এবং মোহাম্মদ (স:) তার নবী। আমি প্রতিজ্ঞা করছি, আমি মুসলিম হিসেবেই মরব।

নিহত হলে, আমি চাই আমাকে যেন মুসলিম রীতি অনুযায়ী সমাহিত করা হয়। মৃত্যুর সময় যে কাপড়ে থাকব সে কাপড়েই এবং শরীর না ধুয়েই সিরতের গোরস্থানে যেনো সমাহিত করা হয়, আমার পরিবার ও আত্মীয়দের পাশে।

আমি চাই, আমার মৃত্যুর পর আমার পরিবার বিশেষ করে নারী ও শিশুদের সঙ্গে যেন ভাল ব্যবহার করা হয়। লিবিয়ার জনগণের উচিত তাদের আত্মপরিচয়, অর্জন, ইতিহাস এবং তাদের সম্মানিত পূর্ব পুরুষ ও বীরদের ভাবমূর্তি রক্ষা করা। লিবিয়ার জনগণের উচিত হবে না, স্বাধীন ও শ্রেষ্ঠ মানুষদের ত্যাগের ইতিহাস বিসর্জন দেওয়া।

আমার সমর্থকদের প্রতি আহ্বান, তারা যেনো প্রতিরোধ করে যায় এবং লিবিয়ায় আজ, আগামীকাল এবং সবসময়ের জন্য বিদেশি আগ্রাসী শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করে।

বিশ্বের সব স্বাধীন মানুষকে জানিয়ে দাও, ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও সুস্থির জীবনের জন্য আমরা যথেষ্ট দরকষাকষি করেছি এবং সামর্থ খাটিয়েছি। এর বিনিময়ে আমাদের অনেক কিছু দিতে চাওয়া হয়েছিলো কিন্তু এই সংঘাতের সময় দায়িত্ব ও সম্মানের রক্ষাকারী হিসেবে দাঁড়ানোকেই আমরা বেছে নিয়েছি।

মৃত্যুর পরে আমার পরিবার বিশেষ করে নারী ও শিশুদের প্রতি যেন ভালো আচরণ করা হয়। লিবিয়া যেন তাদের স্বরূপ, পরিচয়, অর্জন ইতিহাস, ঐতিহ্য রক্ষা করে চলে।’

read more »

ট্যাগ সমুহঃ ,
অক্টোবর 24, 2011

পশ্চিমারা কি সবাইকে পুতুল করে রাখে চাই ?


একজন শাসক হিসেবে তাঁর দেশের অধিবাসীদের জন্য যেসব সুযোগ-সুবিধার বন্দোবস্ত করেছিলেন, তা কোনোভাবেই অস্বীকার করা যাবে না

গাদ্দাফির প্রজারা ছিলেন রাজার হালেই । আধুনিক সময়ের নগরজীবনের অন্যতম প্রধান চাহিদা বিদ্যুত্। আর লিবিয়ার জনগণ সেই বিদ্যুত্ ব্যবহার করত পুরোপুরি বিনামূল্যে। সরকারনিয়ন্ত্রিত ব্যাংকগুলো থেকে বিনা সুদে ঋণ দেওয়া হতো নাগরিকদের। তেলসমৃদ্ধ দেশটির তেল বিক্রি করে যে টাকা আয় হতো, তা সরাসরি পাঠিয়ে দেওয়া হতো লিবিয়ার সব জনগণের ব্যাংক হিসাবে।

গাড়ি কেনার সময় লিবিয়ার নাগরিককে গাড়ির মূল্যের অর্ধেক সরকার থেকে ভর্তুকি দেওয়া হতো। তেলসমৃদ্ধ লিবিয়ায় প্রতি লিটার পেট্রলের মূল্য ছিল মাত্র ০.১৪ ডলার। মাত্র ০.১৫ ডলারে পাওয়া যেত ৪০ স্লাইসের বড় রুটি।

read more »